বেসিক ইলেকট্রনিক্স এর খুঁটিনাটি সম্পুর্ণ বাংলায়

basic electronics

ইলেক্ট্রনিক্স একটি সহজ ও মজার সাবজেক্ট হলেও আমরা ছাত্রছাত্রীরা নানা ধরনের সমস্যার মুখোমুখি হয়। বেসিক ইলেকট্রনিক্স এর খুঁটিনাটি জানা থাকলে পরবর্তিতে তেমন কোনো সমস্যা হয় না। বেসিক ইলেকট্রনিক্স এর ডায়োড, ট্রানজিস্টর, PNP, NPN, BJT, MOSFET সম্পর্কে ধারনা থাকলে পরের ধাপগুলো সহজ হয়ে যায়। আমরা এই পোস্টে বেসিক ইলেকট্রনিক্স এর খুঁটিনাটি সম্পুর্ণ বাংলায় জানতে যাচ্ছি।

ইলেক্ট্রনিক্সঃ ইন্জিনিয়ারিং এর যে শাখায় ভ্যাকুয়াম টিউব, গ্যাস টিউব, সেমিকন্ডাক্টর ইত্যাদি এর মধ্যদিয়ে ইলেক্ট্রন প্রবাহ নিয়ে আলোচনা করা হয় তাকে ইলেক্ট্রনিক্স বলে। ইলেক্ট্রনিক্সের কম্পোনেন্ট দুই ধরনের। যথা-

১) Active component
2) Passive component
  • Active component- যে সকল কম্পোনেন্ট চালানোর জন্য আলাদা পাওয়ার সোর্সের প্রয়োজন হয় তাকে Active component বলে। যেমন- Transistor, FET, TRIACs, SCRs, LEDs etc.
  • Passive component- যে সকল কম্পোনেন্ট চালানোর জন্য আলাদা পাওয়ার সোর্সের প্রয়োজন হয় না তাকে passive component বলে। যেমন- Resistors, Capacitors, Inductors, Diodes

বেসিক ইলেকট্রনিক্স

Transistors: Transistor হলো- তিন টার্মিনাল, তিন লেয়ার, এবং দুই জাংশন বিশিষ্ট সেমিকন্ডাক্টর ডিভইস, যা ইনপুট সিগন্যাল এর শক্তি বৃদ্ধি করে আবার সুইচিং ডিভাইস হিসেবেও কাজ করে।
এর তিনটি টার্মিনাল হলো- বেস, ইমিটার এবং কালেক্টর। বেস টার্মিনাল ইনপুট হিসেবে এবং কালেক্টর ও ইমিটার আউটপুট হিসেবে ব্যাবহার করা হয়।

Transistor প্রধানত দুই প্রকার। যথা-
1) BJT (Bipolar Junction Transistor)

2) FET (Field Effect Transistor)

BJT কে দুই ভাগে ভাগ করা হয়। যথা-
1) PNP (Positive-Negative-Positive) Transistor.

2) NPN (Negative-Positive-Negative) Transistor.

আরো পড়ুনঃ ইলেকট্রিক্যাল ও ইলেকট্রনিক্সের সাংকেতিক বর্ণের পূর্ণরূপ

FET কে দুই ভাগে ভাগ করা হয়। যথা-
1) JFET (Junction Field Effect Transistor).

2) MOSFET (Metal Oxide Field Effect Transistor).

JFET আবার দু প্রকার। যথা-
1) P-Channel.
2) N-Channel.

MOSFET আবার দুপ্রকার।যথা-
1) Depletion Mode.
2) E-Only (Enhancement Only) Mode.

Depletion Mode আবার দু প্রকার। যথা-
1) P-Channel.
2) N-Channel.

Enhancement Only Mode আবার দু প্রকার। যথা-
1) P-Channel.
2) N-Channel.

Diode: Diode হলো- দুই টার্মিনাল বিশিষ্ট একটি ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস, যাতে একটি PN Junction থাকে এবং যা একমুখী কারেন্ট প্রবাহ সৃষ্টি করতে পারে। এক কথায়- একটি PN Junction কেই Semiconductor Diode/ Crystal Diode বলে। ডায়োডের দুটি টার্মিনাল –
1) Anode.
2) cathode.

আরো পড়ুনঃ সরকারি চাকরি পরীক্ষার সম্ভাব্য প্রশ্ন 

সবচেয়ে বেশী ব্যাবহৃত ডায়োডগুলো হলো-
1) জেনার ডায়োড (zenar Diode)

2) লাইট ইমিটিং ডায়োড (Light Emitting Diode/ LED)

3) সেভেন সেগমেন্ট ডায়োড ( Seven Segment Diode/ LED Display)

4) ফটো ডায়োড ( Photo Diode) (আলোর প্রতিফলনে কাজ করে)

5) টানেল ডায়োড ( Tunnel Diode)

6) ভ্যারাক্টর ডায়োড ( Varactor Diode)

7) স্কটকি ডায়োড ( schottky Diode)

8. ভ্যারিষ্টার ডায়োড ( Barrister Diode)ilek

 

 

২০১৩ সালে ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং এর ছাত্রদের অধিকার আদায়ের লক্ষ্যে তৈরি করা হয় ডিপ্লোমা ইন ইঞ্জিনিয়ারিং ফেসবুক গ্রুপ। আমরা দীর্ঘ ৭ বছর ধরে ইঞ্জিনিয়ারদের নানাবিধ সমস্যার সমাধান করে আসছি। চাকুরি পড়াশুনা থেকে শুরু করে যারা ইঞ্জিনিয়ার হতে চান তাদের সু-পরামর্শ প্রদান করা আমাদের প্রধান উদ্দেশ্য। স্বাগতম জানাই আমাদের ফেসবুক গ্রুপে, এইখানে ক্লিক করে এখনি জয়েন করে নিন। আশা করি একে অপরের সাথে সৌজন্যমুলক আচারণ করে ইঞ্জিনিয়ার ভাইদের প্রতি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেবেন।