সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং কি এবং সিভিল ইঞ্জিনিয়ারদের ক্যারিয়ার

সৃষ্টি শুরু থেকেই পুরকৌশল বা সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের সূচনা। সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং-কে প্রকৌশল জ্ঞান এর মা বলা হয়। ধারণা করা হয় প্রাচীন মিসরে ৪ হাজার আগে পুরকৌশলবিদ্যার প্রসার ঘটে। এরপর ধীরে ধীরে রোম, ব্রিটেনসহ ইউরোপের বিভিন্ন দেশে জনপ্রিয় হয়ে উঠে। এবং ১৮২৮ সালে লন্ডনে Institution of Civil Engineers এটিকে পেশা হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছিল।

সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং মূলত অবকাঠামোগত উন্নয়ন প্রকল্পের পরিকল্পনা ও বাস্তবায়নের প্রকৌশলী বিজ্ঞানের সমন্বয়। কোনো প্রকল্পের নকশা, ব্যবস্থাপনা, গঠন, নির্ধারণ তদারকি, পরিকল্পনা ইত্যাদি একজন পুরকৌশলীর প্রধান কাজ। ব্যক্তিগত বাড়ি, আবাসন প্রকল্প, বাণিজ্যিক ভবন নির্মাণ প্রকল্প, সড়ক-মহাসড়ক নির্মাণ ও মেরামত, বাঁধ নির্মাণ, কলকারখানা নির্মাণ, বন্দর নির্মাণের অবগকাঠামোগত উন্নয়ন প্রকল্পের সাথে সিভিল ইঞ্জিনিয়াররা যুক্ত থাকেন। জ্ঞান বিজ্ঞানের শাখা প্রশাখা বিস্তৃতির সাথে সিভিল ইঞ্জিনিয়ার এর পরিসর দিনদিন বেড়ে চলছে। সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং এর উল্লেখ্যযোগ্য কয়েকটি ভাগ হচ্ছেঃ

  • স্ট্রাকচারাল ইঞ্জিনিয়ারিং
  • এনভায়রনমেন্টাল ইঞ্জিনিয়ারিং
  • জিওটেকনিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং
  • ওয়াটার রিসোর্স ইঞ্জিনিয়ারিং
  • ট্রান্সপোর্টেশন ইঞ্জিনিয়ারিং
  • কন্সট্রাকশন ইঞ্জিনিয়ারিং
  • আরবান এবং কম্যিনিটা প্লানিং

আরো পড়ুনঃ বাংলাদেশে ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে ক্যারিয়ার

আমাদের দেশে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং পড়াশুনার একটি অন্যতম বিষয় বলে বিবেচিত হয়। দেশের প্রায় সব সরকারী বেসরকারী পলিটেকনিক সহ সকল প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়েই সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ার সুযোগ রয়েছে। এছাড়া দেশের বিভিন্ন প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় থেকেও এ বিষয়ে পড়ার সুযোগ যথেষ্ট। ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারদের উচ্চশিক্ষার জন্য ঢাকা প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং এর সুযোগ দিয়ে থাকে।

বর্তমান বিশ্বে শিক্ষা দীক্ষায় সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বা পুরোকৌশল বিদ্যা গুরুত্ব বহন করছে। এবং দিনদিন এর চাহিদা উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পাচ্ছে। দুবাই সিঙ্গাপুর নিউজিল্যান্ডকে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারদের স্বর্গ বলা হয়। এসব দেশে প্রতিবছর প্রচুর পরিমাণে তৈরি হচ্ছে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারদের চাহিদা। বাংলাদেশ ভারতেও সিভিল ইঞ্জিনিয়ারদের ভালো চাহিদা রয়েছে। বাংলাদেশে নতুন সিভিল ইঞ্জিনিয়ারের বেতন ২৫ হাজার থেকে শুরু হয়ে ৩৫ হাজার পর্যন্ত হয়ে থাকে। এছাড়া অভিজ্ঞতার দিক থেকে সেই আয় বেড়ে লাখ ছাড়িয়ে যায়।

অন্যান্য পোস্টঃ 

সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং ভাইভা প্রশ্ন ও উত্তর
ব্যাকবেঞ্চার থেকে গুগলের ইঞ্জিনিয়ার হয়ে ওঠার গল্প

দেশ গড়ার হাতিয়ার ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার। আমাদের ডিপ্লোমা ইন ইঞ্জিনিয়ারিং গ্রুপে স্বাগতম। ২০১৩ সালে ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং এর ছাত্রদের অধিকার আদায়ের লক্ষ্যে তৈরি করা এই গ্রুপ দীর্ঘ ৭ বছর ধরে ইঞ্জিনিয়ারদের নানাবিধ সমস্যার সমাধান করে আসছে। চাকুরি পড়াশুনা থেকে শুরু করে যারা ইঞ্জিনিয়ার হতে চান তাদের সু-পরামর্শ প্রদান করা আমাদের প্রধান উদ্দেশ্য। স্বাগতম জানাই আমাদের ফেসবুক গ্রুপে, এইখানে ক্লিক করে এখনি জয়েন করে নিন। আশা করি একে অপরের সাথে সৌজন্যমুলক আচারণ করে ইঞ্জিনিয়ার ভাইদের প্রতি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেবেন।